Continue Reading

যন্ত্রণার ভিন্নরূপ

      মা : “আজ আর কলেজে গিয়ে লাভ নেই মামন। গরম জলে স্নান সেরে নে। আমি পরে হট্ ব্যাগে গরম জল দিচ্ছি, সেঁক দিলে আরাম পাবি।” মামনের মায়ের মতো প্রায় একই রকম কথা সুমির মাও বলেন, বিশেষ সেই দিনগুলোতে। প্রকৃতির স্বাভাবিক নিয়মে প্রত্যেক মেয়েকেই যখন এমন অস্বাভাবিক যন্ত্রণার…

Continue Reading

শঙ্খনীল

        শঙ্খ যে মাঝে মাঝে নীলাকে বলে না, “তুমি মেয়েটা ভালো, তবে মাথার ভিতর রেমন্ডের ছিট রয়েছে”-  কথাটা হয়তো ঠিকই। কর্পোরেট হাউসে দায়িত্বপূর্ণ পদে কাজ করা শঙ্খ যখন নীলার জন্য খুব কষ্ট করেই  সময় বের করে, একসাথে কিছুটা সময় দু’জনে দু’জনার মধ্যে হারিয়ে যাবে বলে, তখন নাহলে…

Continue Reading

অন্বেষণ

    একটি বাঁকের মুখে দাঁড়িয়ে ভাবছি- কোথায় গিয়ে শেষ হবে এই পথ, সামনে কি আছে অপেক্ষায় কোনো বিপদ! আলো-আঁধারে জীবন অজানা আশঙ্কায়, পায়ে-পায়ে চলেছি জীবনের সীমারেখায়, যেখানে দাঁড়িয়ে, অজস্র শিকড় পায়ের নিচে- একটা ছাড়ালে আরেকটা যায় জড়িয়ে। এই জনহীন পথ ছিল না আমার জন্যে, তবুও অতিক্রান্ত সময়কে দিয়েছি জীবন…

Continue Reading

বসন্ত প্রেম

        আমি খবর পেয়েছি বসন্তের। সকালবেলায় যে পাখিটা আমায় খবর দিয়ে গেল তার নাম সুখ। আমি শুয়ে ছিলাম বিছানায়। দাঁড়ালাম জানলার পাশে একফালি রোদ আমার ঘরে নির্লজ্জের মতো চেপে বসেছে, রাতের ঝোড়ো হাওয়াটা কখন যে শাড়িটাকে এলোমেলো করে গেছে, খেয়ালই করিনি!   সুখপাখি খবর দিয়েছে বসন্তের- চিরন্তন…

Continue Reading

উল্টোডাঙা

        “উল্টোডাঙা…উল্টোডাঙা…উল্টোডাঙা…” বেশ জোরে চিৎকার করছে টাটা সুমোর ড্রাইভারটা। আর দু’জন হলেই ছাড়বে গাড়ীটা। দেখতে দেখতে হয়েও গেল। উঠে পড়ল রূপসা আর বাসের জন্য দাঁড়িয়ে থাকা অভি।  আধ ঘণ্টার মধ্যেই চলে এল উল্টোডাঙা। সকলে ভাড়া মেটাচ্ছে। রূপসা টাকা দিয়ে এদিক ওদিক চেয়ে আছে। অভি টাকা দিয়ে মুখ…

Continue Reading

বোহেমিয়ান

      তুমি খুব আত্মসম্মানী হলে আমার কোনো সম্মানবোধ নেই। তুমি হিসেবী হলে, আমি হিসাবের কিতাব ছিঁড়ে ওড়াই বাতাসে। তুমি কুর্নিশ করলে আমি ভাবি বুঝি সার্কাস দেখাচ্ছো! তুমি একটু বন্ধু হলে, আমি সেই বন্ধুত্বের খুশিতে বেবাগী বাউন্ডুলে। তোমার মনে যখন সুখের আকাশ, আমার স্বপ্নে তখন বোহেমিয়ান ঝোড়ো বাতাস। তুমি…

Continue Reading

মা-মেয়ের উপাখ্যান

        সোমার আজও কাজ সেরে শুতে শুতে অনেক রাত হয়ে গেল। ওর দুই মেয়ে রাধা আর রানী মায়ের জন্য অপেক্ষা করতে করতে কখন যে ঘুমিয়ে  পড়েছে কে জানে। সোমার স্বামী আবীর বেশিরভাগ সময়ে কাজের সূত্রে বাইরে থাকে। সোমা বিহারী পরিবারের মেয়ে, কিন্তু বাঙালি পরিবারে খুব সুন্দর করে…

Continue Reading

আমার ছেলেবেলার প্রেম

  চট্টগ্রামের চৌধুরীহাট ষ্টেশনের অদূরে পাহাড়ঘেঁষা ফতেহাবাদ গ্রামে আমার ছেলেবেলা কেটেছে। সে সময়ে আমার খেলার সাথী ছিল আমার থেকে দু’বছরের বড় আমার ছোড়দি আর গ্রামেরই আরো কয়েকজন আমাদের সমবয়সী ছেলেমেয়ে। তাদের মধ্যে আমাদের পাশের বাড়ির দুই বোনও ছিল। বড়বোন ছিল ছোড়দির বন্ধু। কথা কম বলত, বাড়িতেই বেশি সময় থাকত, মায়ের…

Continue Reading

অকপটে বসন্ত পঞ্চমী

      ব্যস্ত আমি বেল দিতে দিতে স্কুলে স্কুলে ঘোরায়, আড়চোখেতে মুগ্ধ হওয়া হলুদ শাড়ির পশরায়, একটা দিনের স্বাধীনতা চুটিয়ে আড্ডা মারা- পাত্তা পাওয়া হালকা হাসি হৃদয় পাগলপারা। হাসি ঠাট্টা, ঘোরার ভিড়ে একটু আড়াল খোঁজা, দু হাত ভরে লুটে নেওয়া ধোঁয়া ওড়ানোর মজা। এখন আমি বাইক আরোহী সাইকেল গেছি…

Continue Reading

সম্পর্ক

      বহুদিন পর দেখা আরুহি আর সূর্য্য-র৷ -কিরে, ভালো আছিস তো? বহুদিন পর এই প্রশ্নটা শুনে সূর্য্য নিজের মনেই বলে ওঠে মেয়েটা আজও বদলায়নি, মুখে শুধু বলে -হ্যাঁ, ভালো আছি৷ আর তুই? -আছি এক রকম৷ -খারাপ নেই সেটা বুঝতেই পারছি, তাও একবার জিজ্ঞেস করলাম ভদ্রতার খাতিরে৷ -তোর আমার…

Continue Reading

সুজাতা

  ।। ১ ।। হীরক সামান্য আলো নিয়ে তুমি দাঁড়িয়ে থাকতে রাস্তায় , হীরক সামান্য আলো নিয়ে তুমি দাঁড়িয়ে থাকতে রাস্তায়। আমার কৈশোর চলে গেলো, যৌবন চলে গেলো, এই বানপ্রস্থে একি আলোর খেলা দেখি। চোখ জ্বলে যায় , চোখ জ্বলে যায় , ভুবনমোহিনী।। ।। ২ ।। ছাই ভস্ম সব গিলে…

Continue Reading

না বলা কথা

  দেবারতির মনে আজ একটা চাপা টেনশন কাজ করে চলেছে সারাদিন। স্কুলে ক্লাস নেওয়ার ফাঁকে ফাঁকে যেন চিন্তাটাকে চেষ্টা করেও ভুলতে পারছে না সে। টিফিন এর সময় পাপিয়াদি জিজ্ঞাসাও করলেন, “তোমার কি হয়েছে বল তো, দেবারতি? বাড়ীতে কোন অশান্তি?” “ক‌ই, কিছু না তো”, বলে এড়িয়ে গেল দেবারতি। কিন্তু কমনরুমের অনেকেই…

Continue Reading

তোজোর ভাষা দিবস

  অনবরত কলিং বেল বাজতেই শেলী ঘরের ভিতর থেকে বলতে লাগল, “আসছি আসছি তোজো, এতবার কলিং বেল বাজালে নষ্ট হয়ে যাবে তো! উফফ্।” দরজা খুলতেই তোজো এক ছুটে ঘরে ঢুকেই ঠাম্মির কোলে গিয়ে বসল। তারপর দুজনে কিছুক্ষণ ফিসফিস। শেলী এবার চোখ পাকিয়ে ছেলের দিকে তাকিয়ে বলল, “তোজো, যাও ফ্রেশ হয়ে…

Continue Reading

বাংলা ভাষা

  ছেলে আমার হিন্দি বলে, ইংরেজিতে লেখে এসব কিছুর চাপের মাঝে বাংলা কখন শেখে? অ আ ক খ লিখতে গিয়ে জটিলতায় ভরা কি হবে ছাই বাংলা পড়ে সময় নষ্ট করা!   ছেলে আমার ইংরেজি স্কুল সাহেব সাহেব চাল, তুমিই বলো পিত্জা ছেড়ে, কে খায় ভাত ডাল? বাংলা গানে কিসের জাদু?…

Continue Reading

আমার একুশ

      আমার একুশ রক্তে রাঙা, শহীদের বলিদান; আমার একুশ বাংলা ভাষা, বাংলার সম্মান। আমার একুশ গর্ব আমার, কত শত বীরের জীবন দান; আমার একুশ বাংলা গান, আমার অভিমান। আমার একুশ ভোরের আলো, সবুজ বাংলা মাঠ; আমার একুশ ‘কিশলয়’ আর বাংলা ‘সহজ পাঠ’। আমার একুশ গ্ৰীষ্ম দুপুর, বর্ষা, শীতের…