Continue Reading

জন্মদাগশঙ্কা

জন্মদাগশঙ্কা ।। সঞ্চালিকা আচার্য নাড়ি ছিঁড়ে প্রসব করেছি যা, সে তো এক শরীর-ই।আমি কি এমন জাদুকরী মাটি দিতে পারি,যার পোষণে সে হবে দৃঢ়মূল?তাকে কখনো রেখেছি আদুল,আবার কখনো আদুরে বেড়ায় ঢেকে;যাতে জীবন চিনে নেয় আকাশ ও পাতাল দুইয়েরই আঙ্গিকে। তার ও পরে ভয় হয় যদি কোনো জিনগত শিথিল মনন,বৃদ্ধি ব্যাহত ক’রে…

Continue Reading

পোড়ো বাড়ি

পোড়ো বাড়ি ।। সূচিতা দাস পোড়ো বাড়ির মতো  পরিত্যক্ত জীবন,আগাছায় ভরা মনটা যখন,নিজেই নিজের কাছে অচেনা এখন,ঝলমলে রোদ্দুর ঢোকেনি বহুদিন-অযত্নে বাড়িটি বড়ই মূল্যহীন,জমে আছে সুখস্মৃতি ফাটলের ফাঁকে-ধুলোপড়া অতীতেরা আজ ও কেন ডাকে, বাড়িটির বুক-চিরেগাছেরা মাথা তুলে,যন্ত্রণার আর্তনাদ আকাশে বাতাসে,পরিত্যক্ত পোড়ো বাড়ি রয়েছে পড়ে-কেউ আর ওপথে যায় না ভুলে…।

Continue Reading

অন্যঘর

অন্যঘর ।। অভি প্রতি রাতে থাকতে আমি চাই,জলভেজা ওই চোখের পাতায়,গল্প গুলোর দিতে গিয়ে খোঁজহারিয়ে ফেলি ঠিকানা তোর রোজ।ছেঁড়া খাতায় লেখা যে তোর নামআমার কাছে বড্ড বেশি দাম।বলতে পারিস একঘেয়েমি আমিকেন যে রোজ তোর বাড়িতেই থামি !তোর ছাদে যে রোদটা এসে পড়েযোগায় আলো আমার খেলা ঘরে।ভালো থাকিস, আর কিছু তো…

Continue Reading

মনখারাপগুলো

মনখারাপগুলো ।। পঙ্কজ মনখারাপগুলো থিতিয়ে পড়েছে কিছুটা,কাল ও পরশু নামবে কিছুটা আরো,হঠাৎই একদিন না জানিয়েমিশে যাবে রক্তের প্রবাহে।কখনো বা ফিরে আসবেএকলা মুহূর্তে দোসর হয়ে,কিংবা ভিড়ের মাঝে একলা করতে,কিংবা হয়ে যাবে খোয়া যাওয়া হাওয়া।পথ ভুলে যাওয়াটাও জীবনের নাম,আরেকটি পথের খোঁজেপুরোনো পথ ভোলাটাই সহজ ও স্বাভাবিক।

Continue Reading

পারুল দিদি

পারুল দিদি ।। লেখা : সুমা আইচ হাজরা হঠাৎ করে তোমার কথা মনে পড়ে গেল,পারুল দিদি,কী করে সব বদলে দিয়েছিলে তুমি,আমার জীবনের রেখা,তোমার সীমান্ত রেখা ধরে।আমার ছেলে বেলার সবচেয়ে কাছের সাথী ছিলে তুমি।কোঁকড়ানো কালো চুলের রাশিতে,আর টানা অথচ মায়াবী চোখের তারায়,তুমি ছিলে আমার ভালবাসার জীবন্ত প্রতিমা।তোমাকে ঘিরে কত শত ব্যাকুলতা…

Continue Reading

মনে পড়ে?

Read Bengali poem on pandulipi,net | দু’হাত মেলে ভাসান টানে যাই
পাখির মতো আকাশ মেঘে মেঘে
দু’জন মিলে এতদিনের ইচ্ছেগুলো ভাসাই।

Continue Reading

সেদিনও বৃষ্টি ছিল

সেদিনও বৃষ্টি ছিল ।। প্রলয় দাস সেদিনের মতো আজও আকাশে জমেছে, কেবল বিন্দু বিন্দু মেঘ।আর এদিকে একটি মনের ভেতর চলছে তুমুল ঝড়-বৃষ্টি,চোখে জল বেয়ে গড়িয়ে পড়ছে, তীরতীর করে হৃদপিন্ডে হচ্ছে আমোঘ এক গর্জন, টিনের চালে ঝুম বৃষ্টির শব্দ।থেকে থেকে বুকের ভেতর উথলে উঠছে ঢেউ,দেখতে পাচ্ছি বাড়ির পাশের গাছের ডালে বসে…

Continue Reading

দোলাচল

দোলাচল ।। তুলসী কর্মকার বাবাকে জিজ্ঞাসা করি এত বই কেন?পড়ে দেখলে কী হয়?বাবা বলেন, অভিব্যক্তি রাখা আছে।সত্যের সন্ধানে ব্যক্তিগত স্প্রিংপ্রকৃত সত্যি একপ্রকার নির্লজ্জস্থিস্তিস্থাপক ধর্মের ভিতে লুক্কাইত।যাঁরা পুল ধরে টানেন তাঁরা টের পানকেন পৃথিবীতে প্রত্যেকদিন সকাল হয়,মাঝে মাঝে জল ঝড়শীত কখনো গরম।যাঁরা এসবের ধার ধারেন নাতাঁরাও উপভোগ করেন,গনগনে আগুনে হাত সেঁকেন,ভাত…

Continue Reading

পিছুটান

পিছুটান ।। লেখা : রাজীব চক্রবর্তী পথচলা ইতিহাস হয়।ফেলে যাওয়া কিছু ধুলি কণা,আয়নার কোণে লেগে থাকা জলছবির মতবাসা বাঁধে মনের ঘরে।নিঃসঙ্গ রাতের আঁধারেঘিরে ধরে স্মৃতির কোলাজ। জীবন এক অশ্বমেধের ঘোড়া,মৃত্যুর হাতে বন্দি হবার আগেএঁকে যায় খুরের দাগ।বর্তমানের রথেআগামীর পথে যেতে যেতেমন হেঁটে চলে সেই পদচিহ্ন ধরে,খুঁজে নিতে আলোছায়া ঘেরা একভালবাসা…

Continue Reading

কেউ কেউ ফেরে না

ফুলদানির মন নিয়ে গেছে একগোছা গ্ল্যাডিওলাস,
পর্দায় আটকে জন্মদিনের স্মৃতি, আর বেলুনের দাগ।

Continue Reading

ভালোবাসা

ভালোবাসা ।। জয়দেব ভট্টাচার্য ।। প্রচ্ছদ – নিকোলাস ভালবাসা কী! সারাদিন নানা স্বরে ভালবাসা ভালবাসা, ভালোবাসার শোরগোল ভালবাসা কী এক মিথ। যুক্তিহীন আবেগে বয়ে যাওয়া মানুষকে মানুষের সঙ্গে জুড়ে রাখার চেষ্টা, এ ই আরকে ডুবে থাকা এক মোহ শান্তি সুখ আনন্দে ভাসার ভেলা ভালবাসা। ছোটো ছোটো সুখ, মুহূর্তে মুহূর্তে ভালোলাগা,…

Continue Reading

তবুও চরৈবেতি

শুভ্রাংশু কুম্ভকারের “তবুও চরৈবেতি”ছবি – জয়দেব ভট্টাচার্য ছায়াঘেরা রাজপথে আমাদের যাত্রা নয়,কাঠফাটা রোদে পোড়া পথ তপ্ত বালুময়।গতিপথের প্রতিটি পদক্ষেপে পিছুটান থাকে,ব‍্যথাভরা স্মৃতিগুলো পা আঁকড়ে রাখে।কুসংস্কারাচ্ছন্ন অন্ধকারে দৃষ্টি হ্রাসমান,লক্ষ্য বিচ্যুতির পথে জেগে থাকে কামনার টান।খোলাচোখ তবুও মরীচিকা দিকভ্রষ্ট করে,নিয়মিত পদস্খলন অপ্রতিরোধ্য মোহ বাহুডোরে। তথাপি অনাগত আগামীর ডাকে,আশারা বাঁচবে নির্ভয়ে, এই আশা…

Continue Reading

সুখ

সুখলেখা – সুমা আইচ হাজরা এই সংকটময় কালে, সুখ তুমি কি রুদ্ধদ্বারে আবদ্ধ?আর অসুখ বিষাক্ত বিষের নাগপাশ থেকে উন্মুক্ত!অস্তমিত সায়াহ্নে, অবঘুন্ঠিত প্রকৃতির ললাটে সোনালী সূর্যের আভায়,যেন সুখেরই প্রতিচ্ছবি।তবুও হাহাকার সুখ- তোমারই তরে,প্রকৃতির গভীর সংকট কালে,এ যেন এক অভিশপ্ত অধ্যায়।মানবিক অনাচার-দূরাচার, সীমাহীন পাপাচার,ফল্গুধারার মতো প্রবাহিত অন্তঃসলিলায়,প্রকৃতিকে ধ্বংস করার উন্মত্ত উদযাপনে….হে রুদ্র…

Continue Reading

কত কিছু হয় নি বলা

কত কিছু হয় নি বলা লেখা – অরূপ কুমার পালছবি – অরিন্দম ঘোষ মাঝে মাঝে মেঘ করে আসে,বিষাদের ফোটা ফোটা দাগ জানলার কাঁচে।মুখ ভার করে সেই যে চেয়ে থাকি…নিঃশ্বাসে মিশে যায় বৃষ্টির শব্দ। চোখ দুটো ফিরে তাকায়…আষাঢ়ের দিন সামনে এসে বসে,অভিমান থেকে অল্পটুকু নিয়ে আলাপচারিতা,দিনযাপনের গল্পে বাকি থাকে না বলা…

Continue Reading

রোদ্দুরের সাথে

রোদ্দুরের সাথেলেখা – পিয়ালী হোড়ছবি – অরিন্দম ঘোষ রোদ্দুরের সাথে দিয়েছি আজ আড়ি,মনখারাপের রবি আতঙ্কগ্রস্ত,বনবীথির ছায়া সুনীলশান্তিনিকেতনে ঘুমের ঘোরেপ্রেমের হাতছানিপথের বাঁকে খরখরে খোয়াইপ্রধূমিত গন্ধ প্রেমিকের শরীর এলিয়ে…কর্ণকুহরে গুনগুন স্বনন,নিভু আলোয় চালিয়েছিপ্রণয়সিক্ত আলাপন..শক্তির রসদদাগের আঁকিবুকি নও, শুধুভালোবাসার সহজ পাঠ,একলা থাকার পাথেয়৷