Continue Reading প্রেমে অপ্রেমে

প্রেমে অপ্রেমে

প্রেমে অপ্রেমে ।। লেখা – সুদীপ দাশ প্রেম কি ছিল কোনদিন?বহুবাসনায় প্রাণপণে চেয়েছি যে তাকে,কখনো পেয়েছি কি গন্ডুষ ভরা প্রাণ?ছিল দাবি, ছিল আশা, প্রাণহীন বুকে ;অস্ফুট কথা ছিল রঙহীন ঠোঁটে,ছিল না এক সমুদ্র প্রেমের ঢেউ-অথবা নিপাট আটপৌরে চালধোয়া হাতখানি,একবুক ভালোবাসার ছিল যে খাঁই-প্রেমের আবাসে আজধান খাওয়া বুলবুলির কেবল ওড়াউড়ি,দিনান্তের খাজনা…

Continue Reading এখানে একান্তে

এখানে একান্তে

এখানে একান্তে ।। লেখা : অনির্বাণ সরকার এখানে আকাশ নীল,রঙিন ঋতুর ছোঁয়া,জোছনায় দুধ-ধোয়ানীরব লহরী ভরা ঝিল;এখানে পাখির ঝাঁকপ্রতিদিন ভোর-সাথী,দিবালোক সাঁঝবাতি–আমার স্মৃতিতে ধরা থাক।এখানে একান্তে বসেশুধু যেন হয় মনে–নিজেরই নির্বাসনেদূরের তারাও যায় খসে!এখানে জানিয়ে যাই,আমার এ-শান্ত নীড়তোমাদের পৃথিবীরদিগন্তরেখার পরে ঠাঁই।এখানে সময় শেষ;আর ফেরা হবে নাকো,–তোমরাও ভাল থাকো,আমিও ভালই আছি বেশ।

Continue Reading কুয়াশা

কুয়াশা

কুয়াশা ।। লেখা : লাবণী বসু কুয়াশা জমছে তোমার মনেকুয়াশায় ঘেরা সকাল।ভালোবাসা যেন যাচ্ছে সরেসন্দেহ অবিচল। বিস্ময়ের মেঘ দু’চোখে নিদ্রাদিবারাত্রির লুকোচুরি।সময়ের ভারে স্রোতহীন আবেগশিথিল প্রেমের তরী। সেদিনও ছিল এমনই সন্ধ্যাসোহাগের কুহুতান।চেনা স্পর্শের অচেনা গহবরেজমেছিল অভিমান। মধ্যযামিনী ভিজে যায় যেনএকাকিত্বের আলিঙ্গনে।হিমাদ্রিসম স্মৃতির ভারভিড় জমায় প্রাঙ্গণে। অনুভূতির আকাশে ঘনকালো মেঘ ঝাপসা কাঁচের…

Continue Reading পরিচালক

পরিচালক

পরিচালক।। লেখা : তুলসী কর্মকার পর্ব ১মধ্যরাত… গদিতে ঈশ্বরসৃষ্টি পালন ধ্বংস করছেন। পর্ব ২একটি বাক্সে হরেক ধর্ম আছে,এক এক করে স্বহস্তে বিতরণ করছেন। পর্ব ৩লম্বা লাইন… জীব জড় সকলে হাজির,যে যা পাচ্ছেন নিয়ে খুশি হচ্ছেন। পর্ব ৪হঠাৎ বাক্স শেষ!মানুষ অবাক হয়ে দেখছেন। পর্ব ৫ঈশ্বর: হে মানুষ, তুমি কী চাও?মানুষ: আশীর্বাদ।ঈশ্বর:…

Continue Reading প্রজাতন্ত্র

প্রজাতন্ত্র

প্রজাতন্ত্র ।। লেখা : রাজীব চক্রবর্তী অনন্ত দর্পে প্রাসাদ শিখরেযে রঙিন জয় পতাকা ওড়ে,ফিকে হয়ে যায় একদিন। সিংহাসন ধুলোয় মিশে যায়,রথচক্র দাগ পথেই হারায়,রাজ শিখা নয় যে অন্তহীন। একচ্ছত্র আকাশের বুকেবিদ্রোহ দেয় ইতিহাস লিখে,অজান্তে অগুনিত বঞ্চিত হাতে। একদিন সব পথ হারাবে সীমানাথেকে যাবে মানুষ, পরিচয় বিনাদুঃখ-সুখের ভাগ হবে একসাথে। এক…

Continue Reading মানবতা

মানবতা

মানবতা ।। তুলসী কর্মকার একদিনঈশ্বর মৃত বলে ঘোষিত হবে,সরকার পতন হবে,টাকা মূল্য হারাবে,নারী স্বপ্ন ভঙ্গ হবেমদ নেশা হারাবে,তখনটাকা সরকার ঈশ্বর মানুষের সৃষ্টি বলে গণ্য হবে,উচ্চবিত্ত অর্থ নারীর মোহ থেকে বঞ্চিত হবে,নিম্নবিত্ত ও সরকার নেশা মোহ থেকে সরে আসবে।বহুকাল বেঁচে আছি মধ্যবিত্ত হয়েটাকা সরকার ঈশ্বর নারী কেউ কথা রাখেনি।ক্রমাগত কষ্টের সাথে…

Continue Reading প্রথম প্রেম

প্রথম প্রেম

প্রথম প্রেম ।। লেখা – সৌমিতা চক্রবর্তী ঘাসের ভাঁজে লুকিয়ে রাখা আমার প্রথম প্রেম-সূর্যাস্তের তখনও কিছু বাকি, যখন মনে হল সেই প্রেম খুঁজে দেখি।নিযুত বছর বুকের ভেতর খিল আঁটা এক বৃষ্টিভেজা দুপুর-উঠোন জুড়ে ‘আজ’ ছড়িয়ে যখন, তখন মনে হয় সেই দুপুরের কাছে গিয়ে বসি।আকাশকুসুম মুখচোরা আবেগ সাহস করে একদিন বলেই…

Continue Reading একটি নৌকার আত্মকথা

একটি নৌকার আত্মকথা

একটি নৌকার আত্মকথা লেখা – শুভ্রাংশু কুম্ভকার তিনকুল বলে কিছু নেই,শুধু দুই কূলই আমার গন্তব্য।নিত‍্য যাতায়াতের সঙ্গীরা আত্মার আত্মীয়।সাক্ষী থাকি কথা, হাসি, গল্পের আসরে।বিশ্রাম পোষায় না কোনো কালে,আনন্দ খুঁজে চলি নদীর বুকের ছায়ায়,আকাশের লালে,জল চিকচিক করা তরঙ্গের তালে।গোধূলি আলোয়, বেলা শেষের ক্ষণে,ঘরে ফেরা যাত্রীদের গানে,সন্ধ্যার নরম অন্ধকার নামে পৃথিবীর কোলে।আমার…

Continue Reading আত্মকথা

আত্মকথা

আত্মকথা :: লেখা – দেবশ্রী আমি নাকি তিতাস নদী ছিলাম,শান্ত,স্নিগ্ধ, নরম কথা বলা।মাঝে মধ্যে উঠত বুকে ঢেউ,পাথর ভেঙে হ’ত তবু চলা। ছিল সেথা ছোট্ট একটি পাখি,গা ভেজানো ছিল যে তার খেলা।তার মিষ্টি গানে জুড়ে নদীর তানকেটে যেত তিতাস নদীর বেলা। নাই তো সেথা শব্দমুখর ব্যস্ত জনজীবন,সবুজ জলে স্বর্গ খেলা আর…

Continue Reading জন্মদাগশঙ্কা

জন্মদাগশঙ্কা

জন্মদাগশঙ্কা ।। সঞ্চালিকা আচার্য নাড়ি ছিঁড়ে প্রসব করেছি যা, সে তো এক শরীর-ই।আমি কি এমন জাদুকরী মাটি দিতে পারি,যার পোষণে সে হবে দৃঢ়মূল?তাকে কখনো রেখেছি আদুল,আবার কখনো আদুরে বেড়ায় ঢেকে;যাতে জীবন চিনে নেয় আকাশ ও পাতাল দুইয়েরই আঙ্গিকে। তার ও পরে ভয় হয় যদি কোনো জিনগত শিথিল মনন,বৃদ্ধি ব্যাহত ক’রে…

Continue Reading পোড়ো বাড়ি

পোড়ো বাড়ি

পোড়ো বাড়ি ।। সূচিতা দাস পোড়ো বাড়ির মতো  পরিত্যক্ত জীবন,আগাছায় ভরা মনটা যখন,নিজেই নিজের কাছে অচেনা এখন,ঝলমলে রোদ্দুর ঢোকেনি বহুদিন-অযত্নে বাড়িটি বড়ই মূল্যহীন,জমে আছে সুখস্মৃতি ফাটলের ফাঁকে-ধুলোপড়া অতীতেরা আজ ও কেন ডাকে, বাড়িটির বুক-চিরেগাছেরা মাথা তুলে,যন্ত্রণার আর্তনাদ আকাশে বাতাসে,পরিত্যক্ত পোড়ো বাড়ি রয়েছে পড়ে-কেউ আর ওপথে যায় না ভুলে…।

Continue Reading অন্যঘর

অন্যঘর

অন্যঘর ।। অভি প্রতি রাতে থাকতে আমি চাই,জলভেজা ওই চোখের পাতায়,গল্প গুলোর দিতে গিয়ে খোঁজহারিয়ে ফেলি ঠিকানা তোর রোজ।ছেঁড়া খাতায় লেখা যে তোর নামআমার কাছে বড্ড বেশি দাম।বলতে পারিস একঘেয়েমি আমিকেন যে রোজ তোর বাড়িতেই থামি !তোর ছাদে যে রোদটা এসে পড়েযোগায় আলো আমার খেলা ঘরে।ভালো থাকিস, আর কিছু তো…

Continue Reading মনখারাপগুলো

মনখারাপগুলো

মনখারাপগুলো ।। পঙ্কজ মনখারাপগুলো থিতিয়ে পড়েছে কিছুটা,কাল ও পরশু নামবে কিছুটা আরো,হঠাৎই একদিন না জানিয়েমিশে যাবে রক্তের প্রবাহে।কখনো বা ফিরে আসবেএকলা মুহূর্তে দোসর হয়ে,কিংবা ভিড়ের মাঝে একলা করতে,কিংবা হয়ে যাবে খোয়া যাওয়া হাওয়া।পথ ভুলে যাওয়াটাও জীবনের নাম,আরেকটি পথের খোঁজেপুরোনো পথ ভোলাটাই সহজ ও স্বাভাবিক।

Continue Reading পারুল দিদি

পারুল দিদি

পারুল দিদি ।। লেখা : সুমা আইচ হাজরা হঠাৎ করে তোমার কথা মনে পড়ে গেল,পারুল দিদি,কী করে সব বদলে দিয়েছিলে তুমি,আমার জীবনের রেখা,তোমার সীমান্ত রেখা ধরে।আমার ছেলে বেলার সবচেয়ে কাছের সাথী ছিলে তুমি।কোঁকড়ানো কালো চুলের রাশিতে,আর টানা অথচ মায়াবী চোখের তারায়,তুমি ছিলে আমার ভালবাসার জীবন্ত প্রতিমা।তোমাকে ঘিরে কত শত ব্যাকুলতা…

Continue Reading মনে পড়ে?

মনে পড়ে?

Read Bengali poem on pandulipi,net | দু’হাত মেলে ভাসান টানে যাই
পাখির মতো আকাশ মেঘে মেঘে
দু’জন মিলে এতদিনের ইচ্ছেগুলো ভাসাই।