উত্তরণ

Uttoran-bengali-poem-by-pankaj-ghosh-at-pandulipi.net

লিখেছেন: পঙ্কজ ঘোষ
প্রচ্ছদ: শহিদুল আলম

মনখারাপগুলো থিতিয়ে পড়েছে কিছুটা,
কাল ও পরশু নামবে কিছুটা আরো,
হঠাৎই একদিন না জানিয়ে
মিশে যাবে রক্তের প্রবাহে।
কখনো বা ফিরে আসবে
একলা মুহূর্তে দোসর হয়ে,
কিংবা ভিড়ের মাঝে একলা করতে,
কিংবা হয়ে যাবে খোয়া যাওয়া হাওয়া।
পথ ভুলে যাওয়াটাও জীবনের নাম,
আরেকটি পথের খোঁজে
পুরোনো পথ ভোলাটাই সহজ ও স্বাভাবিক।

Author: admin_plipi

14 thoughts on “উত্তরণ

  1. সবসময় ভোলাটাই সহজ ও স্বাভাবিক কি? দোসর হয়ে বার বার ফিরে আসবেই।

  2. ছবি টা ব্যাপক। একদম মনেহচ্ছে লেখাটির দোসর। hate off sahidul babu.

    1. অসংখ্য ধন্যবাদ। আপনাদের criticism আমার আর ভালো করার অনুপ্রেরণা।

  3. নাম টা যথার্থ। মনের স্তর এর উত্তরণ। দারুন লেখা।

  4. মন খারাপ গুলোকে পাশে রেখে এগিয়ে যাওয়ার নাম ই তো জীবন। এটা যদি Sushant Singh Rajput বুঝতে পারতেন তবে আজ উনি আমাদের মাঝেই থাকতেন

  5. প্রতি রাতের অন্ধকারে পর দিন তো আসবেই। এটাই প্রকৃতি। প্রাকৃতিক নিয়মেই আমরা বার বার বিফলতা ভুলে সাফল্যের স্বপ্নে বিভোর হই। তাই বর্তমান প্রেক্ষিত এ এমন লেখা খুব প্রয়োজন। ডিপ্রেশন চারদিকে। একটু ধৈর্য ধরলেই সমস্ত মনখাপগুলো তবিটিয়ে পড়বে।

  6. কবিতা টা শুরু হয়েছিল ভালো। চলছিল তরতরিয়ে। হঠাৎ মনে হলো ভাবনা টা এলোমেলো হয়ে গেল শেষ তিন লাইনে । পথ কি ভোলা যায় ? পুরানো হলেও সেই পথই তো আরেক নতুন পথের খোঁজ দেয় । এই ধারাবাহিক পথ চলার প্রক্রিয়ায় ভবিষ্যতে অন্য কোনো আরও নতুন পথের খোঁজ পায় মানুষ । পেরিয়ে যায় তাকেও পেছনে ফেলে নতুনতরের দিকে উত্তরণের স্বাভাবিক ধর্মে । আজ যা পুরানো কাল তা নতুন। তাই পুরানো কখনো সম্পুর্ন ভোলা যায় না। স্মৃতির তলানিতে তার ক্ষীণ অবস্থান উথলে ওঠে কোন একলা বিকেলে অথবা সঙ্গী হয় জনাকীর্ণ নির্জনতায়।
    ভাবনার ভিন্নতা সত্বেও কবিতা টা ভালো লেগেছে। শহিদুল আলমের প্রচ্ছদে কবির ভাবনার প্রক্ষেপণ যথাযথ।

  7. কবিতায় অন্তর্লীন ভাবটা ভাল। তবে ছন্দে খামতি রয়েছে। প্রচ্ছদ সুন্দর

Leave a Reply

Your email address will not be published.