Continue Reading

রূপসার একদিন

রূপসার একদিন ।। লেখা : অদিতি ঘটক -“এসব কি হচ্ছে টুকুন? ক্লাস করতে করতে আবার গেম খেলা! তোমাকে বলেছি না এভাবে ফোনের ব্যাটারি শেষ করবে না। আর যেন না দেখি! ওহ! তোমাকে নিয়ে আর পারি না। খাবার আনছি… আজ কিন্তু তোমার ফেবারিট খাবার নয়।” ছোট্ট রূপসা পুতুল নিয়ে নিজের মনে…

Continue Reading

প্রজাতন্ত্র

প্রজাতন্ত্র ।। লেখা : রাজীব চক্রবর্তী অনন্ত দর্পে প্রাসাদ শিখরেযে রঙিন জয় পতাকা ওড়ে,ফিকে হয়ে যায় একদিন। সিংহাসন ধুলোয় মিশে যায়,রথচক্র দাগ পথেই হারায়,রাজ শিখা নয় যে অন্তহীন। একচ্ছত্র আকাশের বুকেবিদ্রোহ দেয় ইতিহাস লিখে,অজান্তে অগুনিত বঞ্চিত হাতে। একদিন সব পথ হারাবে সীমানাথেকে যাবে মানুষ, পরিচয় বিনাদুঃখ-সুখের ভাগ হবে একসাথে। এক…

Continue Reading

আইকম বাইকম

আইকম বাইকম ।। লেখা : চিত্রাভানু সেনগুপ্ত শ্যামনগরের দুই যমজ ভাই আইকম আর বাইকমের দুষ্টুমির বহর আছে ষোল আনা। সকল সময়েই তাদের দুষ্টুমিতে থাকে নতুন চমক, কখনো কখনো সে দুষ্টুমি এমনই চমকপ্রদ হয়, পাড়ার লোকে তাদের তখন ডাকাত বলে ডাকে। আখেরে তারা দুষ্টু মোটেই নয়, তারা সকলের উপকারই করতে চায়…

Continue Reading

পয়া কলম

পয়া কলম ।। লেখা : অমিতাভ সাহা স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে রাস্তার ধারে একটি খুব সুন্দর ডিজাইন করা কলম কুড়িয়ে পেল সমীর। কলমটার রিফিলে কালি শেষ হয়ে গেছিল। তাই বলে এত সুন্দর কলম কেউ ফেলে দেয়? ও পেনটাতে নতুন রিফিল ভরে নিল। কদিন ব্যবহার করার পর দেখল, এই পেনটা…

Continue Reading

হলুদ পাখি

হলুদ পাখি।। লেখা : রঞ্জনা বসু হলুদ পাখিটা কী সুন্দর! লাল ঠোঁট, হলদে, কালো ডানা।পাখিটা রোজ সকালে এসে বসে তোতনদের জামরুল গাছে। তোতন তখন পড়ার টেবিলে বসে খোলা জানালা দিয়ে পাখিটাকে দেখে। তোতন ছোট থেকেই পাখি ভালোবাসে। তাই বলে, তোতন যে খুব বড়ো হয়ে গেছে তা কিন্তু নয়। ওর বয়স…

Continue Reading

স্বপ্ন হবে সত্যি

স্বপ্ন হবে সত্যি ।। লেখা : ডাঃ জয়দীপ মুখোপাধ্যায় অনলাইনে ক্লাসটা শেষ হতেই তুতুনের চোখদুটো যেন বুজে এলো। আবার একঘন্টা পরে ভূগোলের ক্লাস। দুপুরে না খেয়ে শুয়ে পড়লে মায়ের কাছে বকা খাওয়া অবধারিত।তুতুন দেখতে পেলো ঘরটা অন্ধকার হয়ে এসেছে। ওর পাশে রাখা মোবাইল থেকে একটা হালকা নীলাভ আলো সেই অন্ধকারে…

Continue Reading

অচিনপুর

অচিনপুর ।। লেখা : শ্রেয়া বাগচী মায়ের ফোন হারিয়ে গিয়ে জুঁইয়ের মন খারাপ। তার এখন দাদু-ঠাম্মি, লাটুদাদু আর সবুজ বাড়ির কথা মনে পড়ছে। দুর্গাপুজোয় একবারই ঠাম্মির বানানো মুড়ির মোয়া, কুলের আচার আর ছাদে দেওয়া বড়ির স্বাদ পায় জুঁই। জুঁই তখন সবুজ বাড়ির দীঘিতে পদ্ম পাতার উপর শিশিরের ফোঁটা গুনে নিয়ে…

Continue Reading

হলুদ পরী

হলুদ পরী ।। লেখা : তনিমা সাহা ঋতমের আজ খুব মনখারাপ। ক্লাস ফোরে পড়ে সে। বার্ষিক রেজাল্টটা এবার একটুকুও ভালো হলো না। বাড়িতে মা-বাবা, কাকু, দাদু-ঠাকুমা সবাই আশা করে বসে আছেন ঋতমের ভালো-রেজাল্টের জন্য। বাড়ির একদম কাছেই স্কুল… তাই ঋতম একাই যায় স্কুলে। রেজাল্ট নিয়ে এসেই সে দীঘির পাড়ে মনমরা…

Continue Reading

জীবনের শিক্ষা

জীবনের শিক্ষা ।। লেখা : প্রসেনজিৎ দত্ত একদা একদেশে এক চাষী তার দুই ছেলেকে নিয়ে শান্তিতে বাস করত। চাষী ছিল কর্মঠ। মনের জোরে সব কাজ সে একাই করত। সংসারে সব দায়িত্ব কাঁধে নিয়ে দুই ছেলেকে মানুষ করার দায়িত্ব নিয়েছিল। সারাদিন মাঠে হাড়ভাঙা খাটুনির পর প্রতি বছর সোনার ফসলঘরে তুলতো। এইভাবে…

Continue Reading

জামাই আদর

জামাই আদর ।। লেখা : প্রমিতা মান্না শুভর ফোনে একের পর এক ফোন ঢুকছে। আমি কতক্ষণ ধরে রেডি হয়ে বসে আছি, বাপের বাড়ি যাব। কাল জামাই ষষ্ঠী, তাই আজই চলে যাব। এখন যা পরিস্থিতি কখন যে লকডাউন হয়ে যায় বোঝা যাবে না। শুভ ফোন রেখে দিয়ে আমাকে বলল, “শোনো একটা…

Continue Reading

লকডাউন

লকডাউন ।। লেখা : শঙ্কর নাথ প্রামাণিক দোতলায় ব্যালকনির পাশে পড়ার ঘরে ছোট্ট প্রকাশ। গতকাল বিকেলে সামান্য জ্বর হওয়ার পর থেকে মা তাকে পড়ার ঘরেই থাকতে বলেছে। প্রকাশ একা ছেলে। সঙ্গী বলতে মা আর বাবা। খেলাধুলা নেই, বন্ধুবান্ধব নেই। স্কুল যেন ইঁদুরদৌড়ের প্রতিযোগিতার স্থান। এখন বাড়িতে মা বাবাও দূরে দূরে…

Continue Reading

যদি এমন হতো

যদি এমন হতো ।। লেখা : প্রমিতা মান্না -“রোহান, রোহান। উঠ! উঠ! সকাল হয়ে গেছে পড়তে বসতে হবে তো নাকি!” রোহান পড়াশোনা খেলাধূলা সবেতেই খুব ভালো। একদিন রোহান দুপুরে স্বপ্ন দেখে সে তার তিনটে হাত দিয়ে অংক করছে, হঠাৎ মা ডাকায় রোহানের স্বপ্ন ভেঙে যায়, সে মাকে বলে স্বপ্নের কথা,…

Continue Reading

তাল তলার মাঠে

তাল তলার মাঠে ।। লেখা : অসীম কুমার চট্টোপাধ্যায় সেদিন ছিল উত্তরপাড়ার সাথে আমাদের কলাবাগানের শিল্ড ফাইনাল। দুটো টিমই খুব ভালো। হাবুল স্যার আমাদের দলের কোচ। কয়েকদিন ধরে খুব প্রাকটিস করাচ্ছেন ছেলেদের। স্কুল থেকে ফিরেই আমরা সোজা চলে যাই তালতলার মাঠে। প্রাকটিস দেখি। বিকেল সাড়ে তিনটের সময় খেলা শুরু। মাঠ…

Continue Reading

বন্ধ ঘরে টিকটিকির ভূত

বন্ধ ঘরে টিকটিকির ভূত।। লেখা : শ্রীপর্ণা দাস ব্যানার্জী রিম্পি প্রায় চার মাস পরে ঢুকবে নিজের বাড়িতে। সেই যে মামার বাড়ি গেল মা বাবার সাথে তারপর তো আর ফিরতেই পারল না, করোনার জন্য সব কিছু বন্ধ। মামাতো ভাই বোনের সাথে বেশ কাটছিল সময়। এদিকে বাড়ি ফেরার তাড়াও ছিল বাবা মায়ের,…

Continue Reading

আলোর বিচ্ছুরণ

আলোর বিচ্ছুরণ।। লেখা : অমিত কুমার জানা দুপুর থেকে মেঘ কালো হয়ে প্রবল বৃষ্টি শুরু হলো। অষ্টম শ্রেণীর সায়ন প্রতিদিন বিকেলে তাদের গ্ৰামের মাঠে ফুটবল খেলতে যায়। আজ তার ছোট্ট ভাই সানু বায়না ধরলো সেও মাঠে যাবে। সায়ন সানুকে বললো যে ও খুব ছোট্ট, ওকে বন্ধুরা খেলতে নেবে না। তবুও…