একটি নৌকার আত্মকথা

একটি নৌকার আত্মকথা লেখা – শুভ্রাংশু কুম্ভকার

তিনকুল বলে কিছু নেই,
শুধু দুই কূলই আমার গন্তব্য।
নিত‍্য যাতায়াতের সঙ্গীরা আত্মার আত্মীয়।
সাক্ষী থাকি কথা, হাসি, গল্পের আসরে।
বিশ্রাম পোষায় না কোনো কালে,
আনন্দ খুঁজে চলি নদীর বুকের ছায়ায়,
আকাশের লালে,
জল চিকচিক করা তরঙ্গের তালে।
গোধূলি আলোয়, বেলা শেষের ক্ষণে,
ঘরে ফেরা যাত্রীদের গানে,
সন্ধ্যার নরম অন্ধকার নামে পৃথিবীর কোলে।
আমার বিশ্রাম শুরু পরাধীন নিয়ম শিকলে।
ক্লান্ত খেয়ার মাঝি, কাজ শেষ হলে,
দিনান্তে দূরে যায় চলে,
পড়ে থাকি একা রাতভর,
সাথে তবু চাঁদ উজাগর,
ভালোবাসার সোহাগে ঘুমন্ত মায়াবী নক্ষত্র,
নিদ্রাহীন বিশ্রাম ভাঙে বিশুদ্ধ প্রভাত।
নতুন উদ্যমে শুরু গতানুগতিকতা,
সময়ের অভাবেই গভীর ব‍্যস্ততা।

Author: admin_plipi

2 thoughts on “একটি নৌকার আত্মকথা

  1. খেয়া পারানির প্রভাত সঙ্গীত হতে সন্ধ্যা সঙ্গীত পর্যন্ত যেন জীবনচিত্র অঙ্কিত শব্দের আলপনায়। সুন্দর।

Leave a Reply

Your email address will not be published.