গোধূলি বেলা

লিখেছেন: দেবশ্রী সিংহ

সেদিনও ছিল কি এমনই গোধূলি বেলা!
নেই যেন কেউ সাগর পারে,
একা বসে তীরে গুনছি ঢেউ,
পিছন হতে হাওয়ার টানে ডাক দিলে তুমি মোরে গোধূলি লগনে মেলা।

সামনে অতল জলের ঢেউ ভাঙছে বালুর তীর-
দিনমণি জলে আবীর ছড়াল
আঁধার ঘনায় সুনিবিড় ।

মত্ত যেন সে ঝড়ের বাতাস
খেলা করে যেন মোর নীল বাসে-
শঙ্খ কুড়োই সাগর বেলায়
লতানো চিকুর সরিয়ে ছিলে যেন অবাধ্য ছোঁয়ায় আলগোছে।

জলোচ্ছ্বাসে ভাঙছিল ঢেউ ছিল শুধু দুটি উন্মনা মুখ,
দূর হতে বহুদূরে সে নীল সীমানা জুড়ে
ছিল না তো সেথা আর কোথা কেউ।
চেয়ে দেখি শুধুই জগৎ জুড়ে চলছে সেথা রসের খেলা,
শেষ বেলাতে পূর্ণিমার চাঁদ ভাসিয়েছিল
এসে আলোর ভেলা,
দুলিয়েছিলাম এই হিয়াতল মোরা,
খেলেছি দোঁহে স্বর্গ খেলা।

জলোচ্ছ্বাসে ভাঙল সে ঢেউ
দেখেছি সাগর সৈকতে এসে,
দিনের সূর্য দিগন্তপারে অস্তমিত-
সাথে ছিল শুধু সাগরের ঢেউ আর গোধূলি বেলা-
ছিল শুধু দুটি উন্মনা মন
আর ছিল না কেউ।
পড়ে আছে শুধুই সাগরের ঢেউ
আর পড়ে রয় গোধূলি বেলা।

Author: admin_plipi

4 thoughts on “গোধূলি বেলা

Leave a Reply

Your email address will not be published.