চোর ধরা

চোর ধরা ।। লেখা : সুমন্ত বোস

কিছুতেই ঘুম আসছেনা রিষানের। তার মনে অনেক প্রশ্নের ভিড়। চোর কিরকম দেখতে, কিভাবে আসে, কিভাবে চুরি করে, সকালবেলা কোথায় থাকে, আরো কত কি! ঠাম্মা তার প্রশ্নের উত্তর না দিয়ে নিজের ছোটবেলার চোরের গল্প শুনিয়ে দিল। তাতে তার কৌতুহল পরিনত হল ভয়ে। সে ঠাম্মার আরেকটু কাছে সরে এসে কান পেতে রইল কখন আওয়াজ আসবে, “চোর… চোর…”ইদানিং পাড়ায় চোরের উপদ্রব বেড়েছে। লোকজন ঠিক করেছে পালা করে পাহারা দেবে। চোরটাকে ধরা চাই। আজ, রিশানের বাবাও গেছেন পাহারা দিতে।খানিক বাদে বাবা এল রিষানকেও নিয়ে যেতে। রাস্তায় বেরিয়ে সে দেখল দুধারের দোতলা, তিনতলা বাড়ির ছাতে সবাই লুকিয়ে পাহারা দিচ্ছে। বাবা ভোলা কাকুদের ছাদে নিয়ে এসে বলল, “এখানে তোমার বন্ধু অনির্বাণ, জোজো, বিট্টুদাদা, রিতমদাদা আছে। ওদের সাথে চুপচাপ বসে চারিদিকে নজর রাখ। চোর দেখতে পেলে ‘চোর চোর’ বলে চিৎকার করে আমাদের ডাকবে।” রিষান খুব আনন্দে ওদের কাছে গিয়ে বসল। আজ অন্ধকারেও তার ভয় করছে না। মশা কামড়াচ্ছে, কিন্তু একটুও আওয়াজ করা চলবে না।গভীর রাত, চারিদিক নিস্তব্ধ, কোথাও কোনো সাড়াশব্দ নেই। অনেকক্ষণ বসে আছে রিষান। এখন অন্ধকারেও তার চোখ সয়ে গেছে, অন‍্যান‍্য বাড়ির ছাদে বাকিদের মাথা দেখতে পাচ্ছে সে। টানটান উত্তেজনায় সময় কাটছে সবার, যে কোনো সময় চোর এসে পড়তে পারে।হঠাৎ একটা মৃদু আওয়াজ কানে এল বিপরীত দিকের সরু গলি থেকে। রিষান উঠে এল রেলিংয়ের ধারে। অবাক হয়ে দেখল, একটা রোগা লোক এদিক ওদিক তাকাতে তাকাতে এগিয়ে আসছে। লোকটার সারা গায়ে কালো পোষাক, মুখে কালো কাপড়, পিঠে ঝোলার মত কিছু একটা। শরীরটা অন্ধকারে একেবারে মিশে গেছে। এটাই যে চোর তাতে আর সন্দেহ নেই। ততক্ষণে বাকি চারজনও রিষানের পিছনে এসে দাঁড়িয়েছে। কিন্তু, এখন চিৎকার করলে ব‍্যাটা নির্ঘাৎ পালাবে। তাই নিজেদের মধ্যেই প্ল্যান কষে নিল ওরা পাঁচজন।রাস্তায় নেমে ধীর পায়ে চোরটাকে অনুসরণ করল কিছুক্ষণ। চোর যখন মোটামোটি তাদের আয়ত্বের মধ্যে, তখন তারা ছুটে গিয়ে তাকে জাপটে ধরল। রিষান একটানে মুখের কাপড় খুলে দিল। কিন্তু চোরকে ধরে রাখা কঠিন কাজ। সে সারা গায়ে ভুষোকালি আর চপচপে তেল মেখে রেখেছে। তারা কোনোমতে চেপে ধরে রেখে ‘চোর…চোর…’ বলে চিৎকার করতে শুরু করল। তা শুনে কিছুক্ষণের মধ্যেই বড়রা এসে পড়ল।বাবার ডাকে ঘুম ভাঙল রিষানের। যাহ্, এতক্ষণ তাহলে সে স্বপ্ন দেখছিল! বাবা বলল, সত্যিই একটা চোর ধরা পড়েছে। সে বাবার সাথে গেল চোর দেখতে। কিন্তু আশ্চর্য হয়ে দেখল, তার স্বপ্নে দেখা চোরটাকেই পাড়ার লোকজন ঘিরে রেখেছে।

Author: admin_plipi

Leave a Reply

Your email address will not be published.