পাতা ঝরার বেলা

 

 

 

শেষবেলার আলো ছুঁয়ে আছে

ধূসর পাতাটি,

শিশির বিন্দু বুকে

বিষাদের কালোছায়া

যেন সে আড়াল করেছে।

 

আজও এক নতুন সকাল,

হিমেল বাতাস বয়ে বার্তা এনেছে —

আসন্ন বিষণ্ণবেলা।

অসবুজ দেহভারে

কী মলিন পান্ডুরতা

ছুঁয়ে আছে তাকে !

 

বিগত দিনের স্মৃতিগুলি

আজ তাকে ডাকে,

বনবীথির অঙ্গনে,

কাকলি কুজনে উচ্ছ্বল প্রাণে

নিসর্গের উৎসবে মুখরিত দিনে।

 

ফুলদল মাঝে দলবৃন্ত ছুঁয়ে

কত কথা….কত কানাকানি !

রঙ বেরঙের খেলা

খেলে গেছে প্রজাপতি

পাখায়-পাখায়,

ফুলে-ফুলে পাতায়-পাতায়

প্রতিদিন কত জানাজানি !

 

কত ঝড়জল বয়ে গেছে চলে,

টালমাটাল দিনে

বিটপী দিয়েছে সামাল

সুদৃঢ় আলিঙ্গনে ।

 

পাতাখানি তিরতির কাঁপে

মনে মনে,

মেদুর সে আন্দোলনে।

 

সহচরী পাশের পাতাটি

টুপ করে খসে গেল নিঃশব্দে,

মৌনতায় রেখে গেল সানন্দ স্বাগত

নবাগত কিশলয়ে ।

 

এ মুহূর্ত ঝরার বেলা

এবার ঝরার পালা।

ও গো ঝরা পাতা,

আমি তোমারই দলে ।

 

” আবার আসিব ফিরে….”

 

 

 

কলমে – শুভ্রা

ছবি – কুণাল

Author: admin_plipi

13 thoughts on “পাতা ঝরার বেলা

  1. অপূর্ব সুন্দর কবিতা। বিনাশের মধ্য দিয়েই নূতনের আবাহনের বীজ রোপন করা হয়। লেখিকাকে অভিনন্দন। আরো কবিতা পড়ার অপেক্ষায় রইলাম।
    কবিতাটির মূল ভাব প্রচ্ছদের আলোকচিত্রটির মধ্য দিয়ে অবিশ্বাস্য ভাবে ফুটে উঠেছে। অভিনন্দন কুনালকেও।

    1. অসংখ্য ধন্যবাদ, আগামী দিনে নব কিশলয় সাথে কবিতা মুকুল আসবে আশা রাখি।

  2. ধূসর পাতাটি রবেনা গাছে ,সময় হলেই পড়বে খসে নতূন কিশলয় আসবে বলে ,সবুজের ডাক পেয়েছি মনে —তুমি বার-বার ফিরে এসো —–।ভালো লাগলো

  3. সুন্দর একটি কবিতা। বেশ লাগলো। সাথে কুনালের প্রচ্ছদ ও খুব ই প্রশংসনীয়।

    1. ধন্যবাদ সকলকে। শর্মিলা ,তোমার হাত ধরে চলে এলাম সাহিত্য আসর পাণ্ডুলিপি তে।

  4. বেশ ভালো লাগলো। খুব সুন্দরভাবে অনুভব করে লেখা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.